আমতলীতে স্বতন্ত্র প্রার্থীর হামলায় (ভিডিও) নৌকার প্রার্থীর ১৫ সমর্থক আহত

0
IQSHA IT

বরগুনার আতমলী সদর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর হামলায় আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থীর ১৫ সমর্থক আহত হয়েছেন।

শনিবার দুপুরে উপজেলার সদর ইউনিয়নের কল্যাণপুর ও ইসলামপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
এসময় নৌকার দুটি প্রচার কার্যালয় ও একজন সমর্থকের বাড়ি ভাঙচুর চালানো হয়। আহতদের মধ্যে গুরুতর চারজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপতালে পাঠানো হয়েছে।

ইসলামপুর এলাকার নৌকার প্রার্থীর সমন্বয়ক আবুল আজিজ সর্দার, নয়া হাওলাদার, আবদুল জলিলসহ আরও কয়েকজন জানান, স্বতন্ত্র প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান মোতাহার মৃধা ও তার ভাই খোকন মৃধার প্রায় ২শতাধিক লোক মোটসাইকেল ও মাহেন্দ্রযোগে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে আজ দুপুরে কল্যানপুর এলাকার নৌকার নির্বাচনী প্রচার কার্যালয়ে অতর্কিত হামলা চালায়। এসময় তারা কার্যালয়ে ভাঙচুর ও নৌকা সমর্থকদের মারধর করে ইসলামপুর উল্টাখালী এলাকায় চলে যায়। সেখানেও নৌকার প্রার্থীর নির্বাচনী কার্যালয়ে একই তান্ডব চালায়। পরে শাহ বাড়ির নৌকার সমর্থক রশীদ শাহর বাড়িতে ভাঙচুর ও লোকজনকে মারধর করে।

হামলায় অন্তত ১৫জন নৌকার সমর্থক আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে সুলতান (৫০), বাবুল সরদার (৪০), নাজমুল (৩০) ও বজলু গাজী (৩৫) কে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশালে পাঠানো হয়েছে। বাকিরা আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

আমতলী সদর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী মোঃ জাহিদুল ইসলাম মিঠু মৃধা জানান, চেয়ারম্যান থাকাকালীন মোতাহার মৃধার বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের অভিযোগ থাকায় তিনি দলীয় মনোয়ন না পেয়ে ক্ষুদ্ধ। এর প্রতিক্রিয়া হিসেবে আমার নির্বাচন বাধাগ্রস্ত করতে আমার সমর্থকদের উপর সংঘবদ্ধ হামলা চালিয়েছেন। এ হামলা আমি মনে করি নৌকা ও শেখ হাসিনার উপর হামলা, আমি তীব্র নিন্দা জনিয়ে এর বিচার প্রার্থনা করি।

যোগাযোগ করা হলে স্বতন্ত্র প্রার্থী মোতাহার মৃধা নৌকার প্রার্থীর বিরুদ্ধে পাল্টা অভিযোগ এনে বলেন, উল্টাখালী এলাকার আমার একজন সমর্থকের অসুস্থতা দেখতে গিয়েছিলাম। আমার সাথে সব মিলিয়ে মোট ৮ থেকে ১০জন লোক ছিল। এসময় নৌকার সমর্থকরা আমার ওই সমর্থকের বাড়িতে হামলা চালায়। আমার কোনো লোক নির্বাচনী আচরণ বিধি লংঘন করে নির্ধারিত সময়ের আগে প্রচারনা চালায়নি। আমি শতভাগ নির্বাচনী আচরণ বিধি মেনে চলি।

আমতলী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল বাশার জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। কোনো পক্ষ এখনো পর্যন্ত থানায় অভিযোগ করেনি। আভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!