‘তোর শুধু হাত পা ভাঙ্গা হল, প্রাণে মারলাম না, জানটা ভিক্ষে দিলাম’

0
IQSHA IT

বরগুনা প্রতিনিধি
বরগুনায় হাত পা গুড়িয়ে দিয়ে এক যুবকের প্রাণ ভিক্ষে দিলেন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের এক স্বতন্ত্র প্রার্থী। হাত-পা গুড়িয়ে দেয়ার পরে হামলাকারীরা ওই স্বতন্ত্রপ্রার্থীর সাথে আহত যুবককে মোবাইল ফোনে কথা বলিয়ে দেয়। এসময় ওই স্বতন্ত্র প্রাথী হামলার শিকার যুবককে মোবাইল ফোনে জানিয়ে দেয়, ‘তোর শুধু হাত পা ভাঙ্গা হল, প্রাণে মারলাম না, জানটা ভিক্ষে দিলাম’। বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে যন্ত্রণায় কাতর আহত ওই যুবক মোঃ নাজমুল আহসান হিরু (৩০) সাংবাদিকদের এসব কথা জানান।
হামলার শিকার নাজমুল আহসান হিরু সদর উপজেলার গৌরিচন্না ইউনিয়নের উত্তর লাকুরতলা গ্রামের প্রবাসী মোঃ হাবিবুর রহমানের একমাত্র পুত্র সন্তান। তার বাবা হাবিবুর রহমান বর্তমানে ওমান প্রবাসী। গুরুতর আহত অবস্থায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

নিজেকে নৌকা প্রতীকের একজন সমর্থক পরিচয় দিয়ে হামলার শিকার মোঃ নাজমুল আহসান হিরু আরও জানায়, তাদের বাড়ির কাছাকাছি সোনারবাংলা এলাকা থেকে বরগুনা যাওয়ার উদ্দেশ্যে রওনা হন। এসময় আনারস প্রতীকের সমর্থক আলীম নামের এক যুবক গামছা দিয়ে তার গলা বেঁধে ফেলে। এরপরপরই আনারস প্রতীকের সমর্থক আলিফ, সোহেল, মাসুদ, সুজন, শফিক এবং ওলি ধারালো রামদা এবং ক্রিকেটের স্টাম্ব দিয়ে উপর্যুপরি আঘাত করে তার দুই হাত এবং পা ভেঙ্গে দেয়। এসময় সোনারবাংলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে স্কুলে প্রাইভেট পড়তে থাকা হিরুর ছোটবোন মারুফা ভাইকে বাঁচাতে দৌড়ে এলে তাকেও লাথি মেরে ফেলে দেয় সন্ত্রাসীরা।

বরগুনা জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা: নিহার রঞ্জন বৈদ্য জানান, আহত হিরুর দুই পায়ে গুরুতর জখম হয়েছে। জখম রয়েছে দুই হাতেও। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাঁকে বরিশাল শেরই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এ বিষয়ে আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী অ্যাডভোকেট শাহ মোঃ ওয়ালী উল্লাহ অলি জানান, এর আগেও তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী মনিরুল ইসলাম মনির একাধিকবার সশরীরে হামলা চালিয়ে তার একাধিক সমর্থককে আহত করেছে। ভেঙ্গেছে নৌকা প্রতীকের নির্বাচনী ক্যাম্প। ছিড়ে ফেলেছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি।

এ বিষয়ে কিছুই জানেন না জানিয়ে অভিযুক্ত প্রার্থী মোঃ মনিরুল ইসলাম মনির পাল্টা অভিযোগ করে বলেন, বেশ কিছুদিন ধরে নৌকা প্রতীকের সমর্থকরা তার উপর হামলার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলেও তিনি জানান। আজ মঙ্গলবার দুপুরেও শহরের মিষ্টিপট্টি এলাকায় নৌকা প্রতীকের সমর্থকরা তার উপর হামলা চালানোর চেষ্টা করে। এতে তিনি অক্ষত থাকলেও তার একাধিক সমর্থকরা আহত হয়েছে বলে তিনি জানান।

এ বিষয়ে বরগুনার পুলিশ সুপার মোঃ মারুফ হোসাইন জানান, বিষয়টি খতিয়ে দেখে প্রকৃত অপরাধীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!