বরগুনার ক্রোক খাল খননে অনিয়মের অভিযোগ, প্রতিরোধ গড়ল এলাকাবাসী

0
IQSHA IT

বরগুনা প্রতিনিধিঃ- অনিয়মের অভিযোগে বরগুনার ক্রোক এলাকায় পানি উন্নয়ন বোর্ডে চলমান একটি খাল পুনঃখননের কাজ বন্ধ করে দিয়েছে এলাকাবাসী। ওই খালের উভয়পাড়ের বাসিন্দারা রবিবার সকালে বরগুনা পৌর শহরের ক্রোক এলাকায় উপস্থিত হয়ে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন শেষে খাল খনন কার্যক্রম বন্ধ করে দেন।

এলাকাবাসী দাবি, খালের উভয় পাড় জুড়ে বেশ কিছু অবৈধ স্থাপনা গড়ে উঠেছে। ফলে খালটি ধিরে ধিরে সংকুচিত হয়ে পানির প্রবাহ কমেছে। সম্প্রতি পানি উন্নয়ন বোর্র্ড কর্তৃপক্ষ প্রায় চার কিলোমিটার দৈর্ঘের এ খালটি পুনঃখননের কর্মসূচি হাতে নিয়ে ইতোমধ্যে প্রায় এক কিলোমিটার খাল যেনতেনভাবে খনন করে। এলাকাবাসির অভিযোগ, অবৈধ স্থাপনার মালিকদের কাছ থেকে টাকা নিয়ে উচ্ছেদ ছাড়াই বরং খালের মাটি কেটে সেসব বসতি আরও পাকা পোক্ত করা হয়েছে। ফলে খালের মাটি দিয়ে একপ্রকার খাল ভরাটের কাজই হয়েছে। এছাড়াও অবৈধ দখলদাররা বহাল তবিয়তে তাঁেদর দখলদারিত্ব বাড়িয়েছে। আর এসব অনিয়মের প্রতিবাদেই এলাকার লোকজন সম্মিলিতভাবে প্রতিরোধ গড়েছেন। মানববন্ধনে উপস্থি ওই খালের সুবিধাভোগীদের একজন মোহাম্মদ শাহজাহান হাওলাদার। তিনি বলেন, আমার বয়স পঁচাত্তর বছর। এই খাল সাঁতরে ওপাড়ে যেতে আমাদের কষ্ট হত এত প্রসস্ত ছিল খালটি। কিন্ত দিনে দিনে দখলদারদের দৌরাত্মে খালটি প্রায় মৃতপ্রায়। এ অবস্থায় পুনঃখনের কার্যক্রমকে আমরা সাধুবাদ জানিয়ে সহযোগীতা করতে চাই। আমরা চাই পশ্চিম পাড়ের অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ করে খালটি আগের চেহারায় ফিরে আসুক। একই এলাকার নাসির উদ্দীন মোল্লা বলেন, এই খালটির সাথে আমাদের কৃষি ও দৈনন্দি জীবন যাত্রা জড়িয়ে আছে। আমাদের পানির চাহিদা,. কৃষিজাত পন্য’র ফলনসহ এলাকার সার্বিক উন্নয়নে নানা উপকারে আসে আমাদের এ খাল। এই খালটি নকশানুসারে প্রস্থ ঠিক রেখে খনন করা হোক এটাই আমাদের দাবি।

মানববন্ধনে নেতৃত্ব থাকা কয়েকজনের মধ্যে জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আকতারুজ্জামান রকিব বলেন, আমরা ঠিকাদারকে অনুরোধ করেছিলাম খালটি যাতে কার্যদেশানুসারে খনন করা হয়। কিন্ত তিনি পশ্চিম পাড়ের অবৈধ দখলদারদের কাছ থেকে অনৈতিক সুবিধা নিয়ে খালের মাটি কেটে আরও দখলদারিত্ব প্রসারিত করছেন। পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করেও সুরাহা পাইনি। ফলে আমরা মানবন্ধন কর্মসূচি হাতে নিয়েছি এবং পাউবো নির্বাহী প্রকৌশলী, জেলা প্রশাসক, মাননীয় সাংসদ ও পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রি বরাবর স্মারকলিপি পাঠিয়েছি। আমরা আশা করি এলাকার মানুষের সার্বিক সুবিধার বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে খালটি নিয়মানুসারে খনন করা হবে।

যেগাযাগ করা হলে বরগুনা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী দীপক রঞ্জন দাশ বলেন, এলাকাবাসী দাবির বিষয়টি বিচেনায় রেখেই আমরা খালটি পুনঃখননের উদ্যোগ নিয়েছি। ঠিকাদারকে কার্যাদেশ অনুসারে কাজ করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এলাকাবাসীর সহযোগীতা পেলে আমরা যথানিয়মেই কাজটি সম্পন্য করতে পারবো।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!