বরগুনায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর হামলায় ১০ নৌকা সমর্থক আহত

0
IQSHA IT

বরগুনায় স্বতন্ত্র প্রার্থী ও সমর্থকদের হামলায় ১০ ব্যক্তি আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে তিনজনক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে চিকিতসাধীন রিয়াদ মাহমুদ বলেন, “ফুলঝুড়ি বাজারে নৌকার সমর্থনে অস্থায়ী প্রচার কার্যালয়ে সাউন্ড সিস্টেমে নৌকার আমাদের প্রচারণা চলছিল। এমসময় সেখানে প্রায় দুই থেকে আড়াইশ কর্মী সমর্থক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী মনিরুল ইসলাম হাজির হন। তিনি কার্যালয়ে ঢুকে নৌকা সমর্থকদের চর থাপ্পড় দিতে শুরু করেন। এক পর্যায়ে তাঁর সমর্থকরা নৌকা সমর্থকদের এলোপাতারি মারধর শুরু করে। আমি প্রানের ভয়ে মসজিদে গিয়ে আশ্রয় নেই”।

তিনি বলেন, হামলায় অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। অনেকে প্রাথমিক চিকিৎসা নেন। এদের মধ্যে উনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম লীগের সভাপতি রিয়াদ মাহমুদ, ইউনিয়ন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বশির খান ও যুবলীগ কর্মী সুমনকে বরগুনা জেনারেল হাসপাতাল ভর্তি করা হয়েছে। পরে চিকিৎসকদের পরামর্শে সুমনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

বরগুনা জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক তানভীর শাকিল বলেন, আহত দুজনের শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিন্হ পাওয়া গেছে।

বরগুনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবির মাহমুদ বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যাবস্থা নেয়া হবে।

এ ব্যাপারে স্বতন্ত্র প্রার্থী মনিরুল ইসলামের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি কল রিসিভ করেননি।

নৌকা মনোনীত প্রার্থী শাহ মুহাম্মদ ওয়ালী উল্লাহ ওলী বলেন, নির্বাচনে সহিংসতা কাম্য ছিলনা। গতকাল সোমবার সন্ধ্যায়ও পরীরখাল বাজারে নৌকার সমর্থকদের উপর মনির নিজেই হামলা করেন। আজ ফুলঝুড়ি বাজারে যে ঘটনা মনির ঘটিয়েছে, এটা অত্যন্ত দুঃখজনক ও আমি মর্মাহত। আমি প্রতিদ্বন্দি প্রার্থীকে আহবান করবো ধৈর্যের সাথে প্রচারণার পরিবেশ সুষ্ঠু রাখতে

Leave A Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!